সারা বছরের ক্লাসের কাজের মধ্যে নির্বাচিত  শিল্পকর্ম নিয়ে  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ভাস্কর্য বিভাগের ‘বার্ষিক শিল্পকর্ম প্রদর্শনী-২০১৯’  ১৪ নভেম্বর ২০১৯ বৃহস্পতিবার চারুকলা অনুষদের জয়নুল গ্যালারীতে শুরু হয়েছে।বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এই প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন এবং প্রদর্শনীতে অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীদের মধ্য থেকে অনন্য ৫টি শিল্পকর্মের শিল্পীদের মধ্যে সনদ ও পুরস্কার বিতরণ করেন।ভাস্কর্য বিভাগের এই বার্ষিক শিল্পকর্ম প্রদর্শনী আগামী ১৯ নভেম্বর ২০১৯ পর্যন্ত চলবে। প্রতিদিন সকাল ১১:০০টা থেকে রাত ৮:০০টা পর্যন্ত প্রদর্শনী সকলের জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

ঢাবি ভাস্কর্য বিভাগের বার্ষিক শিল্পকর্ম প্রদর্শনীর অনুষ্ঠান, ছবিঃ সুমিত সেন

ভাস্কর্য বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মুকুল কুমার বাড়ৈ-এর সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন চারুকলা অনুষদের ভারপ্রাপ্ত ডিন অধ্যাপক শিশির কুমার ভট্টাচার্য এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ভাস্কর্য প্রাক্তনি সংঘের সভাপতি ভাস্কর মুজিবুর রহমান। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিভাগের অধ্যাপক লালা রুখ সেলিম।

অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ  শিক্ষার্থীদের কাছে তাঁর  দেখা পৃথিবীর বিভিন্ন স্থানের ভাস্কর্য ও চিত্রকর্ম সম্পর্কে    জানিয়ে বলেন, বিশ্বে ভাস্কর্য শিল্পের ইতিহাস অনেক পুরোনো এবং শিল্পজগতে ভাস্কর্যের গুরুত্ব অপরিসীম। বিভিন্ন দেশে ভাস্কর্য শিল্পের গুরুত্বের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ইতিহাসে রেনেসাঁ বা পুর্নজাগরণেও ভাস্কর্য শিল্প গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছিল।এজন্য তিনি ভাস্কর্য বিভাগের শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন দেশে সেইসব শিল্পকর্ম দেখতে  স্কারশনে যাওয়া এবং বহির্বিশ্বের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে যৌথ কর্মসূচী আয়োজনের প্রতি আলোকপাত করেন।

এ সম্পর্কে জনৈক শিক্ষার্থীর কাছে জানতে চাইলে জানায়,বিভাগে  ছাত্র ছাত্রী সংখ্যায় কম হওয়ায় দেশের ভেতর ট্যুরই নিয়মিত আয়োজন সম্ভব হয়না সেখানে দেশের বাইরে স্কারশন তো অসম্ভব ব্যাপার   তবে বিশ্ববিদ্যালয় চাইলে এটি সম্ভব যেহেতু বিভাগে শিক্ষক শিক্ষার্থীর  সংখ্যা খুবই কম।

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here